ঢাকা, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১০ বৈশাখ ১৪২৬

popular video

রং মিস্ত্রির প্রেমের টানে যুক্তরাষ্ট্রের তরুণী বরিশালে!

দু'জন বাস করেন পৃথিবীর দুই প্রান্তে। ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে পরিচয় হয় তাদের। এরপর ভিডিও কলে কথা। কথা বলতে বলতে ভালোবাসা। প্রেমের টানে সুদূর যুক্তরাষ্ট্র থেকে উড়ে এসে সোজা বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন ক্যালিফোর্নিয়ার বাসিন্দা সমাজকর্মী সারা মেকিয়েন।

বর বরিশাল নগরীর ২নম্বর ওয়ার্ডের কাউনিয়া প্রধান সড়কের খ্রিস্টান কলোনীর মাইকেল অপু মন্ডল। পেশায় তিনি রং মিস্ত্রি। গায়ে হলুদ, আংটি পরিধান, ফাদারের আর্শিবাদ গ্রহণসহ যাবতীয় ধর্মীয় আচার্য পালন করে দুইদিন ধরে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয় তাদের। এরপর তারা নগরীর বান্দ রোডের চারু হোটেলে উঠেন।

এদিকে, বরিশালে এসে স্থানীয় এক যুবককে যুক্তরাষ্ট্রের মেয়ের বিয়ের খবরে উৎসুক জনতা সেখানে ভিড় জমান।নগরীর ২নম্বর ওয়ার্ডের কাউনিয়া প্রধান সড়কের খ্রিস্টান কলোনীর রবীন মন্ডলের দুই মেয়ে এবং এক ছেলের মধ্যে সবার ছোট অপু। কলেজের গণ্ডি পার হতে পারেননি অপু। মাঝে মধ্যে রং মিস্ত্রির কাজ করেন তিনি।

বর অপু জানান, ২০১৭ সালের ১৯ নভেম্বর ফেসবুকে একটি বিতর্ক (ডিবেট) গ্রুপের মাধ্যমে সারার সাথে তার (অপু) পরিচয় হয়। এরপর থেকে নিয়মিত যোগাযোগ হতো তাদের মধ্যে। কথা হতো ভিডিও কলে। এভাবে কথা বলতে বলতে দু'জন দু'জনকে ভালোবেসে ফেলেন। ব্যক্তি সম্পর্ক পারিবারিক সম্পর্কে রূপ নেয়।

ভিডিও কলে উভয় পরিবারের সদস্যরা কথা বলেন এবং ঘনিষ্ঠ হন। গত সেপ্টেম্বর-অক্টোবরের দিকে সারা এবং অপু উভয় পরিবারের সম্মতিতে একে অপরকে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। বিয়ে করতে অপু যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার সুযোগ না পেলেও গত কয়েক মাস ধরে ভিসা প্রসেসিং শেষে বাংলাদেশে এসে প্রেমিককে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন সারা।

গত ১৯ নভেম্বর সারা বাংলাদেশে আসেন। ওইদিন ঢাকার হযরত শাহজালাল (রা.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অপুর সাথে সারার প্রথম সরাসরি সাক্ষাৎ হয়। ওইদিনই তাকে নিয়ে বরিশালের উদ্দেশ্যে রওনা হন অপু। পরদিন ২০ নভেম্বর বরিশালে এসে পৌঁছালে ক্যালিফোর্নিয়ার নাগরিক সারাকে ফুলের শুভেচ্ছা জানায় অপুর পরিবার।

অপুর মেঝো বোন স্কুল শিক্ষিকা সুমা রুৎ মন্ডল জানান, সারা মেকিয়েন খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী। তারাও খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী। তাই বাঙালি রীতি মেনে গত বুধবার গাঁয়ে হলুদ এবং আংটি পরিধানসহ বিয়ের নানা আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন তারা।

গতকাল বুধবার তাদের আর্শিবাদ করেন চার্চের ফাদার। বিয়ের দুইদিনের আনুষ্ঠানিকতার সময় সারা শাড়ি পড়েন। তিনি ভাঙ্গা ভাঙ্গা বাংলা বলতে পারেন। এ দেশের মানুষের ভালোবাসা এবং আন্তরিকতায় সারা মুগ্ধ বলেও জানান সুমা রুৎ।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর একেএম মোর্তুজা আবেদীন জানান, যুক্তরাষ্ট্রের একটি শিক্ষিত মেয়ে স্বেচ্ছায় ভালোবেসে বরিশালে এসে তুলনামূলক কম শিক্ষিত ছেলেকে বিয়ে করেছে, এতে তিনিসহ বরিশালবাসী আনন্দিত। তিনি তাদের সুখী দাম্পত্য এবং উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করেন।

Posted by Newsi24

top read more news

Politics latest news

T
O
P